Satkahon Interview – Utpal Das | Music Composer | Sunday Exclusive

Satkahon Interview – Utpal Das

পরিবার আমাদের ভবিষ্যৎ, আমাদের ভালোলাগা গড়ে উঠতে অনেক ক্ষেত্রেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

পেশাগত ভাবে হোক না না হোক পারিবারিক সঙ্গীতচর্চা থেকেই একটি শিশুর মনে জন্ম নেয় সংগীত চেতনা।

আসাম ডিব্রুগর নিবাসী সুরকার শ্রী উৎপল দাসের জীবন গল্পও খানিকটা সেই রকমই।

বাবা চাকরি করার পাশাপাশি তবলা বাজাতেন।তবে তাঁর জ্যাঠামশাই প্রহ্লাদ দাসের কাহিনী বেশ রোমাঞ্চকর।

রেলের ইঞ্জিন চালক ছিলেন তিনি। শাস্ত্রীয় সঙ্গীতে ছিল তাঁর গভীর অনুরাগ। একদিন গাড়ি চালাতে চালাতে রেলের ইঞ্জিন এক জায়গায় রেখে চাকরি ছেড়ে তিনি পাড়ি দিলেন পুনে।

পুনে যাবার পর সংগীত বিদূষক পণ্ডিত বিনায়ক পট্টবর্ধনের বাড়িতে থেকে ৫ বছর শাস্ত্রীয় সঙ্গীতে তালিম নিতে শুরু করেন।

ফিরে আসার পর তিনি আসামে শাস্ত্রীয় সংগীত প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

বাড়িতে গুনীজনের আসা যাওয়া ছিল অবিরত।

ছোটবেলা থেকেই উৎপল দাস এই সাংগীতিক পরিবারের ছত্রছায়ায় বড় হয়েছেন, বলা যেতে পারে সঙ্গীতের প্রতি অনুরাগ ছিল তাঁর রক্তে।

বাবার কাছে তবলায় হাতেখড়ি। পরবর্তীকালে শ্রী দিলীপ রঞ্জন বড়ঠাকুরের কাছে তবলার তালিম গ্রহণ করতে শুরু করেন।

ধীরে ধীরে তবলায় দক্ষতা অর্জন করতে থাকেন তিনি। একাধিক অনুষ্ঠানে সঙ্গত করতেও শুরু করেন।

কিন্তু চাকরি জীবনের শুরুতেই ঘটে এক অঘটন।

বললেন,

“সেই সময় কলকাতা থেকে ডিব্রুগরে আসতেন বিখ্যাত তবলিয়া পণ্ডিত শঙ্কর ঘোষ। তাঁর কাছে আমি সবে শেখা শুরু করেছি।

হঠাৎই আমার আঙ্গুলে কিছু সমস্যা দেখা দেয়। ফলে আমার তবলা শেখা এবং বাজানো দুটোই বন্ধ হয়ে যায়।

দীর্ঘদিন গান বাজনার সাথে কোন সম্পর্ক ছিল না। সে এক অদ্ভুত মানসিক কষ্ট কারণ আমি নিজে গান না গাইলেও সব সময় সঙ্গীতচর্চার মধ্যেই ছিলাম।

তখন আমি বাড়িতে হারমোনিয়াম বাজাতাম। তারপর গানের সুর করা শুরু করি।“

আসামের বিখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী পুলক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কণ্ঠে তাঁর সুরে মুক্তি পায় ৮ টি গান।

এরপর পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে।

আসামের সঙ্গীতশিল্পী শান্তা উজির, দীক্ষু ও একাধিক গুণী শিল্পী গান গেয়েছেন তাঁর সুরে।

কলকাতা থেকে তাঁর ছেলেকে গান শেখাতে আসতেন শ্রী সন্দীপ ভট্টাচার্য। উৎপল বলেন,

“সন্দীপকে আমি কিছু সুর শোনাই। তখন তিনি আমাকে বলেন তিনি ওই সুরে বাংলা গান গাইতে চান।

তাঁর সুত্রেই আমার বিখ্যাত সরোদবাদক শ্রী প্রত্যুষ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে পরিচয়। পরিচয় হয় স্বনামধন্য সঙ্গীতশিল্পী ইন্দ্রানী সেনের সাথে।

মুক্তি পায় ৮ টি গানের সঙ্কলন “ডাকছে আকাশ আমায়” 

কলকাতার শিল্পী সুনিতা বিশ্বাসের কণ্ঠে মুক্তি পেয়েছে তাঁর হিন্দি ভজন গানের সঙ্কলন “Bhor bhayee”

এছাড়াও তাঁর সুরে গান গেয়েছেন কলকাতা থেকে সঙ্গীতশিল্পী দেবলিনা সিনহা রায়, মহুয়া ব্যানার্জী, সুস্মিতা চক্রবর্তী, নান্টু দাস ও আরো অনেকে।

আগামী দিনে আসতে চলেছে তাঁর আরও কিছু নতুন কাজ।

সবশেষে তাঁর কথায়,

“ আমি মনে করি না আমি সঙ্গীতের খুব বেশী কিছু বুঝি। তবে সঙ্গীতের প্রতি, শিল্পীদের প্রতি রয়েছে আমার নিপাট ভালোবাসা। একদিন সুরকার হিসেবে মানুষ আমার নাম মনে রাখবে এইটুকুই চাই।“

COPYRIGHT © 2020 SATKAHON

Leave a Comment

Your email address will not be published.